রাষ্ট্রীয় জ্ঞান আয়োগ
ভারত সরকার
  


  নিউ
ইন্ডিয়া এনার্জি পোর্টালের
ইন্ডিয়া ওয়াটার পোর্টাল
নিউ সংস্তুতি ও সুপারিশ

  ভাষা
  English
  हिन्दी
  മലയാളം
  অসমীয়া
  ಕನ್ನಡ
  ارد و
  தமிழ்
  नेपाली
  মণিপুরী
  ଓଡ଼ିଆ
  ગુજરાતી
আমাদের বিষয়ে

রাষ্ট্রীয় জ্ঞান আয়োগের বিষয়ে

কোন দেশের জ্ঞান সম্পদা তৈরি করার ও তাকে প্রয়োগ করার ক্ষমতার উপর নির্ভর করে দেশের নাগরিকদের মানবিক বৃত্তিগুলিকে কি ভাবে বাড়ানো যায় ও কিভাবে তাঁদের সক্ষমতার দিকে এগিয়ে দেওয়া যায়৷ আগামী কয়েক দশকে পৃথিবীর সর্বাধিক সংখ্যক যুবাবর্গের মানুষ থাকবে ভারতে৷ জ্ঞান নির্ভর উন্নতির একটা প্যারাডাইম গ্রহণ করলে ভারত এই সংখ্যাতাত্ত্বিক গরিষ্ঠতাকে সুবিধা হিসেবে কাজে লাগাতে পারবে৷ আমাদের প্রধানমন্ত্রীর ভাষায় বলতে গেলে বলতে হয়, “এখন সময় এসেছে প্রতিষ্ঠান গঠনের আন্দোলনের দ্বিতীয় জোয়ারের সুযোগ নেওয়ার এবং শিক্ষা, গবেষণা এবং দক্ষতা বৃদ্ধি এইসব ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠতা লাভ করার যাতে আমরা একবিংশ শতকের জন্য বেশী ভালো প্রস্তুতি নিয়ে এগোতে পারি৷”

এই বৃহত্তর দায়িত্বের কথা মাথায় রেখে রাষ্ট্রীয় জ্ঞান আয়োগের সৃষ্টি হয়েছে ১৩ই জুন ২০০৫ সালে -- যার জন্য ২রা অক্টোবর ২০০৫ থেকে ২রা অক্টোবর ২০০৮ অবধি তিন বছরের সময় দেওয়া হয়েছে৷ ভারতের প্রধানমন্ত্রীর একটি উচ্চ পর্যায়ের উপদেষ্টা সমিতি রূপে রাষ্ট্রীয় জ্ঞান আয়োগকে দায়িত্ব দেখা হয়েছে দেশের নীতি ও সংশোধন প্রক্রিয়ার বিষয়ে মতামত দেওয়ার এবং বিশেষ করে শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিদ্যা, কৃষি, শিল্পোদ্যোগ, ই-গভর্নেন্স প্রভৃতি কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোকপাত করার দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে৷ শিক্ষায় সহজ প্রবেশাধিকার জ্ঞানতন্ত্রের সৃজন ও সংরক্ষণ, জ্ঞানের বিতরণ এবং উন্নত মানের জ্ঞান ভিত্তিক সেবা -- এইসব বিষয়েই আয়োগকে বিশেষ ধ্যান দিতে বলা হয়েছে৷